জেন্ডারভিত্তিক নির্যাতন রোধে পুলিশ আন্তরিক : আইজিপি

নিউজ ডেস্ক: দেশে জেন্ডারভিত্তিক নির্যাতন রোধে পুলিশ অত্যন্ত আন্তরিক বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল।

শনিবার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের সম্মেলন কক্ষে জেন্ডার ভিত্তিক নির্যাতন রোধে পুলিশের “স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউরস (এসওপি)”- এর মোড়ক উম্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, পুলিশ যথেষ্ট আন্তরিকতা ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলা তদন্ত করে।বিভিন্ন থানায় নারী বান্ধব হেল্প ডেস্ক চালু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হবে। পুলিশ ছাড়াও সমাজের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে নির্যাতিত নারী ও শিশুর সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে। এসওপি অনুসরণের মাধ্যমে নির্যাতিত নারী ও শিশুকে সর্বোত্তম সেবা দেয়া সম্ভব।

অনুষ্ঠানে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি ফাতেমা বেগম, অতিরিক্ত আইজিপি মো. মইনুর রহমান চৌধুরী, ডিআইজি (প্রশাসন) বিনয় কৃষ্ণ বালা, ডিআইজি (ক্রাইম ম্যানেজমেন্ট) মো. হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত ডিআইজি মো. জহিরুল ইসলাম ভূইয়া ও ড. এ এফ এম মাসুম রব্বানীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা, ইউএনএফপিএ’র অফিসার ইনচার্জ আইওরি কাতো, ইউএনউইমেন, আইএলও, অ্যাকশন এইড, প্লান বাংলাদেশ, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, আইন ও সালিশ কেন্দ্র এবং বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ইউএনএফপি’র সহযোগিতায় ১৫টি থানায় নারীবান্ধব ডেস্ক চালু আছে। এসব ডেস্কে কর্মরত প্রশিক্ষিত নারী পুলিশ কর্মকর্তারা নির্যাতিত নারী ও শিশুদের সহায়তা দিয়ে থাকে। বর্তমানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি), কক্সবাজার, পটুয়াখালী, সিলেট এবং জামালপুর জেলার ৪৪টি থানায় ইউএনএফপিএ’র প্রোটেকশন অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট অব উইমেন রাইটস (পিইডব্লিউআর) প্রকল্পের কার্যক্রম চালু আছে।