দেখে নিন বিপিএল দলগুলোর প্লে অফের সমীকরণ

লাইভ প্রেস২৪ ডেস্ক: তিন দিনে ছয় ম্যাচ দিয়ে শনিবার (৪ জানুয়ারি) শেষ হয়েছে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেটের সিলেট পর্ব। সিলেট পর্ব শেষে ১০ খেলায় ৭ জয় ও ৩ হারে সমান ১৪ করে পয়েন্ট রাজশাহী রয়্যালস ও চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের। প্লে অফ নিশ্চিত করেছে দু’দলই। এখন প্লে-অফের দৌঁড়ে আছে ঢাকা প্লাটুন, খুলনা টাইগার্স, কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। তিন দলই ৯টি করে ম্যাচ খেলেছে। ঢাকা ১২, খুলনা ১০ ও কুমিল্লার সংগ্রহে আছে ৮ পয়েন্ট। প্লে-অফে খেলার আশা শেষ হয়ে গেছে রংপুর রেঞ্জার্স ও সিলেট থান্ডারের। রংপুর ১০ খেলায় ৪ জয় ও ৬ হারে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ষষ্ঠস্থানে রয়েছে। ১১ ম্যাচে মাত্র ১ জয় ও ১০ হারে ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে সিলেট।

আগামীকাল মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) কুমিল্লা সিলেটের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ঢাকা পর্ব। ঢাকা পর্ব দিয়ে শেষ হবে বিপিএল। যা শুরু হবে ৭ জানুয়ারি। এই পর্বে ১৭ জানুয়ারি বিশেষ ‘বঙ্গবন্ধু’ বিপিএলের ফাইনাল। তার আগে জেনে নেয়া যাক প্লে অফের সমীকরণ।

ঢাকার চাই একটি জয়: নয় ম্যাচ খেলে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে ঢাকা। প্লে-অফ নিশ্চিত করতে আর এক ম্যাচ জিততে হবে দলটিকে। রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে দুটি ও খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে একটি ম্যাচ খেলবে তারা। এই তিন ম্যাচ থেকে দুই পয়েন্ট পেলেই হবে ঢাকার। তবে তারা টানা তিন ম্যাচ জিতে গেলে লিগ টপার হওয়ার সুযোগ থাকবে। এই তিন ম্যাচ থেকে কোনো পয়েন্ট না পেলেও প্লে-অফের রেসে থাকবে ঢাকা। চার বা তিন দলের পয়েন্ট সমান ১২ করে হলে রান গড়ে এগিয়ে থাকা দলই যাবে পরের রাউন্ডে।

খুলনা দরকার চার পয়েন্ট: খুলনা নয় ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট তুলেছে। বাকি তিন ম্যাচের দুটিতে জিতলে সমীকরণ ছাড়াই সুপার ফোর নিশ্চিত হবে। এক ম্যাচ জিতলে ১২ পয়েন্ট নিয়ে সমীকরণের মুখে পড়তে হবে। কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে দুটি ও ঢাকা প্লাটুনের বিপক্ষে একটি ম্যাচ খেলবে খুলনা। কুমিল্লার বিপক্ষে ম্যাচ দুটি আগে। এই দুই ম্যাচে খুলনা জিতে গেলে প্লে-অফের দৌড় থেকে ছিটকে পড়বে কুমিল্লা। আর একটি করে ম্যাচ জিতলে দু’দলই রেসে থাকবে। শেষের তিন ম্যাচে হেরে গেলে লিগ পর্বেই বিদায় নেবে খুলনা। কারণ ১০ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফে উন্নীত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তবে কুমিল্লা ও রংপুরের চেয়ে দুই পয়েন্ট বেশি থাকায় সুবিধাজনক স্থানে থেকে খেলতে পারবে খুলনা।

তিন জয় চাই কুমিল্লার: কুমিল্লা নয় ম্যাচ খেলে আট পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে। শেষের তিনটি ম্যাচ জিততে পারলে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় বা চতুর্থ দল হিসেবে প্লে-অফ খেলার সুযোগ পাবে। দুটিতে জিতলে রান গড়ের সমীকরণে এগিয়ে থাকতে হবে কুমিল্লাকে। তাকিয়ে থাকতে হবে অন্য দলের হার-জিতের দিকে। কুমিল্লা খুলনাকে টানা দুই ম্যাচে হারালে আর ঢাকা নিজেদের সব ম্যাচ জিতলে চতুর্থ দল হিসেবে প্লে-অফে যাবে তারা। কারণ খুলনা লিগের শেষ ম্যাচ খেলবে ঢাকার বিপক্ষে। সেদিক থেকে ১০ পয়েন্ট নিয়ে বিদায় নিতে হবে খুলনাকে।

রংপুরের সম্ভাবনা ক্ষীণ: রংপুর ১০ ম্যাচ খেলে আট পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে। ঢাকার বিপক্ষে বাকি দুই ম্যাচ জিতলে ১২ পয়েন্ট হবে রংপুরের। দুটি ম্যাচই জিততে হবে বড় ব্যবধানে। আর ঢাকা প্লাটুনকে টানা তিন ম্যাচ হারতে হবে বিশাল রান বা উইকেটের ব্যবধানে। খুলনা ও কুমিল্লা ১২ পয়েন্ট করে পেলে এই দলগুলো নেগেটিভ রান গড়ে থাকতে হবে। কারণ রংপুরের রান গড় এখন নেগেটিভ।

লাইভ প্রেস২৪/এমএসএম