‘ভারতের পার্লামেন্টে কিছু পাশ হলে, সেটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়।’

 

বিএনপিকে ধ্বংস করতে তাদের নেতাকর্মীরাই যথেষ্ট : কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ফটো

পিবিএ, ঢাকা : রাষ্ট্রীয় ব্যস্ততার কারণেই ভারত সফরে যাননি স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী। শুক্রবার সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটউশনে, প্রত্যাগত আওয়ামী ফোরামের ১ম সম্মেলনে এ কথা জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এখানে বয়কটের কোনো ঘটনা ঘটেনি। ভারতের সাথে কোনো সমস্যা হলে, আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান হবে। ভারত একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র। দেশটির পার্লামেন্টে কিছু পাশ হলে, সেটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়।’

তিনি বলেন, ‘তাই বলে সফর চিরতরে বাতিল হয়নি। ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক আছে, গঠনমূলক বন্ধুত্ব রয়েছে। এটা যাতে ক্ষুণ্ন না হয় সে ব্যাপারে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে আমাদের কোনো বিষয়ে সমস্যা হলে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে সমাধান সম্ভব।’

এনআরসি নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘ভারত একটি স্বাধীন-স্বার্বভৌম দেশ। তাদের পার্লামেন্টে যদি কোনো আইন পাস হয় সেটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। আমাদের সেখানে মন্তব্য করা সমীচিন নয়। তবে যে বিষয়গুলো আমাদের এফেক্ট করে তার জবাব আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় দিচ্ছে। পররাষ্ট্র থেকে যে বক্তব্য রাখা হয়েছে এর বাইরে আমার কোনো ভিন্ন বক্তব্য নেই।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা আসলে কোনো দলীয় পরিচয়ে হয় না। দুর্বৃত্তদের কোনো দল নেই। বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন বলতে যেটা বোঝায় সেটি দগদগে চিত্র দেখা যাবে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর সংখ্যালঘুদের ওপর যে বর্বরতা হয়েছে তার সঙ্গে। সেটি কেবল একাত্তরের বর্বতার সঙ্গে তুলনা করা চলে।’

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন সামনে রেখে ২৯টি জেলা সম্মেলনের কাজ শেষ হয়েছে। কুমিল্লা ছাড়া, সব জেলাতে সম্মেলনস্থলেই কমিটি দেয়া হয়েছে।

ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে বাঙালি চার নারীর জয়ের সংবাদকে বিজয়ের মাসের বড় খুশির খবর বলেন ওবায়দুল কাদের। তাদের অভিনন্দনও জানান তিনি।

পিবিএ/জেডআই