মাস্তিজাদে শুধুই প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য: সানি

no-photoনিউজ ডেস্ক: পর্ন দুনিয়া থেকে বলিউডে সানি লিওন অনেকটা অতিথি হিসেবে পা রেখেছিলেন। এখন আসন গেড়েছেন পাকাপোক্তভাবে। অল্প সময়ে বলিউডে যেমন নিজের নামটি খোঁদাই করে লিখেছেন, তেমনি পরিণত হয়েছেন অনেক অভিনেত্রীর চোখের কাটায়! হবেই না কেন, তিনি যে বলিউডের অনেক নায়িকাকেই পোশাক কাটছাট করতে বাধ্য করেছেন। যে নায়িকাকে একসময় চুমুর দৃশ্যে অভিনয় করতে বললে পরিচালকের ওপর চটে যেতেন, তিনিই এখন অনায়াসেই বিকিনি পরে সমুদ্র সৈকতে নেচে-গেয়ে বেড়াচ্ছেন, বোল্ড দৃশ্যে অভিনয় করছেন। কারণ তার প্রতিযোগি এখন সানি লিওন। যদিও ‘৭০ এর দশকের অনেক ছবিতে নায়িকাদের নগ্ন বক্ষে অভিনয় করতে দেখা গেছে, তবে সমালোচকদের মতে বলিউডে অশ্লীলতা নাকি সানি লিওনের হাত ধরেই এসেছে। এবার সমালোচকদের বোধহয় আরেকটু সুযোগ করে দিলেন সানি।

সিনেমায় সানি লিওন থাকা মানেই আবেদনময়ী ভিন্নরকম কিছু। পোশাকে, অঙ্গভঙ্গিতে যৌনতার ছড়াছড়ি। এবার ‘মাস্তিজাদে’ সিনেমায় সেই আবেদনকে যেন আরেকটু চড়িযে দিলেন সানি। মুক্তির আগেই বলে দেওয়া হয়েছে সিনেমাটি প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য। তাহলে কি এটা পর্ন ছবি? নামে পর্ন না হলেও সেক্স কমেডির নামে অশ্লীলতার ফুলঝুরি দেখা গেছে নাকি ছবিতে।

গত ২৩ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছে সানি লিওন ও তুষার কাপুর অভিনীত ছবি ‘মাস্তিজাদে’র ট্রেলার। এতে সেক্স কমেডির নামে চরম অশ্লীলতার অভিযোগ করছেন অনেকেই। ছবিটির ট্রেলারই বিব্রতকর ও পরিবার নিয়ে দেখার অযোগ্য বলে মন্তব্য অনেকের।

এর জবাবও দিয়েছেন সানি লিওন। সিনেমাটিকে শুধুমাত্র প্রাপ্ত বয়স্কদের উল্লেখ করে সানি লিওন বলেন, ‘সিনেমাটি সেক্স কমেডি নয়, এটি একটি অ্যাডাল্ট কমেডি। শুধু প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্যই এই সিনেমা। সেন্সরবোর্ড সিনেমাটিকে অ্যাডাল্ট সার্টিফিকেট দিয়েছে।’

দীর্ঘদিন ভারতীয় সেন্সরবোর্ডে ছাড়পত্রের জন্য আটকে ছিল সিনেমাটি। অবশেষে গত অক্টোবরে অ্যাডাল্ট সার্টিফিকেট দিয়ে প্রদর্শনের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়। সিনেমাটি নতুন বছরের ২২ জানুয়ারি মুক্তি পাবে।