হাটহাজারীতে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে খাবার খেয়ে খাদ্যে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত ৩০


পিবিএ,হাটহাজারী: চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ৪নং গুমানমর্দ্দন ইউনিয়নের বড়ুয়া পাড়ায় একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে খাবার খেয়ে খাদ্যে বিষক্রিয়ায় প্রায় ৩০ জন আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দুই জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদেরকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার গুমানমর্দ্দনের নেপাল বড়ুয়া মেম্বারের বাড়ির মণি মোহন বড়ুয়ার স্ত্রী পটুরানী বড়ুয়া নামে এক মহিলা মারা যায়। গত বৃহস্পতিবার তার সাপ্তাহিক ধর্মীয় অনুষ্ঠান নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়। ধর্মীয় অনুষ্ঠান উপলক্ষে আত্মীয় স্বজন ও গ্রামবাসীকে নিমন্ত্রণ করা হয়। নিমন্ত্রিত অতিথিরা দুপুরে যথারীতি খাবার গ্রহন করে ঐদিন সন্ধ্যার পর থেকে অনেকের পেটে সমস্যা দেখা দেয়।

এতে ৩০ জনের মত আক্রান্ত হয়। আক্রান্তদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে ভানুরানী বড়ুয়া ও উর্মিলা বড়ুয়া নামে দুই জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদেরকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বাকি নয়জন যথাক্রমে নিকাশ, মিতা, আইরিন, নিয়তী, কানু বড়ুয়ার স্ত্রী, জয় বড়ুয়াকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে উল্লেখিতদের কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। অন্য আক্রান্তরা নিজ গ্রামে চিকিৎসা সেবা গ্রহন করেছে।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জেন ডা: ফজলে রাব্বি খাদ্যে বিষক্রিয়া জনিত কয়েক রোগীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার সংবাদ পেয়ে তিনি দ্রুত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন। তিনি ভর্তিকৃত রোগীদের চিকিৎসা খোঁজখবর নেন।

খাদ্যে বিষক্রিয়া জনিত দুইজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদেরকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। চমেক হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের রোগ নির্ণয়ের জন্য বিভিন্ন পরিক্ষা দেওয়া হয়েছে। খাদ্যে বিষক্রিয়া ছাড়া ও তাদের শরীরে অন্যকোন সমস্যা আছে কি না পরিক্ষা করে তা দেখা হবে বলে তিনি সাংবাদিকদেরকে জানান।

পিবিএ/খোরশেদ আলম শিমুল/এমএসএম