চাকরি হারালেন জাবির ছাত্রলীগ নেতা

ju-unনিউজ ডেস্ক: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পাওয়া ছাত্রলীগের সেই নেতাকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির বেঁধে দেয়া সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে একক ক্ষমতাবলে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

সোমবার উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম তার নিয়োগ বাতিল করেন বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু বকর সিদ্দিক জানিয়েছেন।

তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মানুযায়ী কাউকে চাকরিচ্যুত করতে হলে সাধারণত এক মাস আগে নোটিশ দিতে হয়। দিপুকে সোমবার চাকরি থেকে অব্যাহতির নেটিশ দেয়া হয়েছে।

এর আগে, শনিবার শিক্ষক সমিতির সাধারণ সভায় বিতর্কিত এ ছাত্রলীগ নেতার নিয়োগ বাতিলের দাবিতে উপাচার্যকে ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেওয়া হয়। কিন্তু নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হলেও উপাচার্য ওই ছাত্রলীগ নেতার নিয়োগ বাতিল না করায় অনির্দিষ্টকালের জন্য সর্বাত্মক কর্মবিরতি ডাক দেয় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। সোমবার উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম ওই ছাত্রলীগ নেতার নিয়োগ বাতিল করেন।

এদিকে, বিতর্কিত এ ছাত্রলীগ নেতার নিয়োগ বাতিল করায় উপাচার্যকে অভিনন্দন জানিয়ে সকল কর্মসূচি স্থগিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোহাম্মদ মাফরুহী সাত্তার বলেন, উপাচার্য আমাদের দাবি মেনে নেয়াতে আমরা সকল কর্মসূচি স্থগিত করেছি।

প্রসঙ্গত, এ বছরের জুলাই মাসে শিক্ষক লাঞ্ছনার অভিযোগে অভিযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল হোসেন দীপুকে অস্থায়ী ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (গ্রন্থাগার) পদে নিয়োগ দেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। তারপর থেকেই জাবির শিক্ষক সমিতিসহ শিক্ষকেরা তার নিয়োগে বিরোধিতা করে আসছিল।

Share This: