হবিগঞ্জে ডাকাত-পুলিশ সঙ্গে সংঘর্ষে আহত ৭

ahotoনিউজ ডেস্ক: হবিগঞ্জ সদর উপজেলার চতুল মাহমুদপুর এলাকায় ডাকাতের সঙ্গে সংঘর্ষে সাত পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় অস্ত্রসহ আন্তঃজেলা ডাকাতদলের পাঁচ সদস্যকে আহত অবস্থায় আটক করেছে হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে হবিগঞ্জ-নসরতপুর বাইপাস সড়কের চতুল মাহমুদপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃত ডাকাতরা হলো- হবিগঞ্জ সদর উপজেলার আব্দাবখাই গ্রামের মন্তাজ আলীর ছেলে সায়েদ (৪৭), চুনারুঘাট উপজেলার কাচুয়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে ফজর আলী (৩০), একই উপজেলার সাটিয়াজুরী গ্রামের ফজর আলীর ছেলে লিটন (২২), ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার লেথিকোড়া গ্রামের রফিক মিয়ার ছেলে শফিক (২১) ও আখাউড়া উপজেলার ধলেশ্বর গ্রামের খুর্শেদ মিয়ার ছেলে রাসেল (১৯)। তাদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুদ্বীপ রায়, আব্দুল করিম, ইকবাল বাহার, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মুসলিমসহ আহত সাত পুলিশ সদস্যকে একই হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস আই) সুদ্বীপ রায় জানান, রাতে ১০ থেকে ১২ জনের ডাকাত দল হবিগঞ্জ-নসরতপুর বাইপাস সড়কের চতুল মাহমুদপুর এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশ ডাকাতদের আটক করতে ওই এলাকায় অভিযান চালান। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতদল রামদাসহ বিভিন্ন অস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে সাত পুলিশ সদস্য আহত হন। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ডাকাতদের ওপর ৮ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে পাঁচ ডাকাত আহত হয়। বাকিরা পালিয়ে যায়।

এ সময় পুলিশ ডাকাতদের কাছ থেকে একটি পাইপগান, চার রাউন্ড তাজা গুলি, চারটি রামদা, একটি ছুরি, একটি লোহার রড ও একটি বড় পলিথিন উদ্ধার করে। সহকারী পুলিশ সুপার (সদর) মাসুদুর রহমান মনির ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Share This: