পানিপথে ঘুরি কাসালং

kasalong-tour-pic-(3)-cover20160114105437নিউজ ডেস্ক: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপার বিস্ময় রাঙ্গামাটি। পার্বত্য এলাকা হিসেবে মন কেড়ে নেয় পর্যটকদের। রাঙ্গামাটির আকর্ষণীয় এক জায়গার নাম কাসালং নদী। পানিপথেই যেতে হয় সেখানে। এখানে জলের সঙ্গে মিতালি গড়ে উঠবে মুহূর্তেই। সময়-সুযোগ হলে ঘুরে আসতে দোষ কী?

অবস্থান
কাসালং উত্তর-পূর্ব পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় কর্ণফুলী নদীর একটি প্রধান উপনদী। ভারতের মিজোরাম রাজ্যের পূর্বাঞ্চলীয় পর্বতশ্রেণি থেকে উৎসারিত হয়ে কয়েকটি ক্ষুদ্র স্রোতধারা রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি এলাকায় একত্রে মিলিত হয়ে কাসালং নদীর সৃষ্টি হয়েছে। উত্তর-দক্ষিণ বরাবর প্রবাহিত নদীটি রাঙ্গামাটি থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার উত্তরে কেদারমারাতে এসে কর্ণফুলী নদীতে পড়েছে। নদীটি ৬৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং সারা বছরই খরস্রোতা।

বৈশিষ্ট্য
লঞ্চে যেতে যেতে নদীর দুই পাশের দৃশ্যাবলীও আপনাকে পুলকিত করবে। কাসালংয়ে ছোট-বড় বেশ কয়টি ঝরনা রয়েছে। এসব ঝরনার শব্দ আপনার কানে বৃষ্টির শব্দের মতো অনুভূত হবে। কাসালংয়ে মুরং, বম, বনজোগি, থিয়াং, পাডেনাই উপজাতিদের জীবনধারাও আপনাকে মুগ্ধ করবে। এখানে রয়েছে সারি সারি বন, উপত্যাকা, গিরিচূড়া, হ্রদ ও ঝরনা। কাসালংয়ের একটু পূর্বে সাজেক ভেলি; যেখানে লুসাই উপজাতিদের বসবাস।

কীভাবে যাবেন
ঢাকা থেকে বা দেশের যেকোনো স্থান থেকে সড়ক পথে রাঙ্গামাটি যাওয়া যায়। রাঙ্গামাটির রিজার্ভ বাজার থেকে প্রতিদিন সকাল আটটায় কাসালংয়ের উদ্দেশে লঞ্চ ছেড়ে যায়।

Share This: