সিরিয়ায় বিমান হামলায় নিহত ৫০

nihotনিউজ ডেস্ক: সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বিদ্যালয়ে হামলার ঘটনায় শিশুসহ অন্তত ৫০ জন মারা গেছেন। সোমবারের এই ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘ প্রেসিডেন্ট বান কি-মুন বলেছেন, এটি স্পষ্টতই আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন।

জাতিসংঘ বলছে, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের হামলার শিকার হওয়া স্কুল ও হাসপাতালগুলোর মধ্যে চিকিৎসা বিষয়ক দাতব্য সংস্থা মেদসাঁ সঁ ফ্রঁতিয়ে বা এমএসএফের একটি হাসপাতাল রয়েছে। হামলায় ওই হাসপাতালে অন্তত ৭ জন নিহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এমএসএফ বলেছে, ইদলিব প্রদেশে তাদের হাসপাতালটিকে ইচ্ছেকৃতভাবে লক্ষ্য করা হয়েছে। ইদলিবের ওই হাসপাতালের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, ইসাবেলে ডেফরর্নি বলেছেন, হাসপাতালটিকে অন্তত ৩ থেকে ৪ বার বোমা হামলা করা হয়েছে এবং হাসপাতালটি ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে।

এই হামলায় নিহত হয়েছে ৭ জন। যাদের মধ্যে ৫ জন রোগী, ১ জন কেয়ারটেকার আর অন্যজন নিরাপত্তারক্ষী। এ ছাড়া হাসাপাতালের আরো ৮ জন কর্মকর্তা এখনো নিখোঁজ রয়েছে এবং আশঙ্কা করা হচ্ছে, তারাও হয়তো নিহত হয়েছেন।

এই ধরনের কাজকে যুদ্ধাপরাধের সামিল বলে মন্তব্য করেছে ফ্রান্স। আর হামলার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করছে সিরিয় মানবাধিকারকর্মীরা, তবে তাদের এই দাবি নিরপেক্ষভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে সিরিয় একজন কূটনীতিক বলছেন, ইদলিবের ওই হাসপাতালটিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান থেকে হামলা চালানো হয়েছে।

জাতিসংঘের মুখপাত্র ফারহান হক বলেছেন, এই ধরনের হামলা অস্ত্রবিরতির সম্ভাবনাকে অনেকটাই হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে।

একটি সম্মেলনে বিশ্ব নেতারা আগামী সপ্তাহখানেকের মধ্যেই একটি যুদ্ধবিরতির চেষ্টা করছিলো।

Share This: