ভোটের অধিকার ফেরাতে নির্বাচনে যেতে চায় বিএনপি

নিউজ ডেস্ক:বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ কোনো জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার না। শুধু গায়ের জোরে, বন্দুক পিস্তল দিয়ে আর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় ক্ষমতায় টিকে আছে। দেশের মানুষের ভোটের অধিকার ফিরে দিতে বিএনপি নির্বাচনে যেতে চায়।

বৃহস্পতিবার বিকেলে লালমনিরহাট জেলা বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, এই সরকার আমাদের হাজার হাজার নেতাকর্মীকে গুম করেছে। তাদের মা বোনেরা, তাদের সন্তানেরা এখনো অপেক্ষা করে থাকে। দরজায় কেউ টোকা দিলে ভাবে-এই বুঝি এলো। কিন্তু তারা আর আসে না। সরকার দেশে একটা ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি।

লালমনিরহাটে বিএনপির সম্মেলন ঘিরে সাজানো মঞ্চ সরিয়ে দেয়া হয়েছে, পতাকা লাগাতে দেয়া হয়নি এমন অভিযোগ তুলে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশ্যে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বাংলাদেশ ১৬ কোটি মানুষের দেশ। এদেশে আমাদের স্বাধীন যে অধিকার আছে। গণতন্ত্রের যে অধিকার, তা আমরা অবশ্যই প্রয়োগ করবো।

তিনি আরও বলেন, আমি প্রশাসনের মানুষদের সাবধান করে দিতে চাই- কারও চাটুকারিতা করবেন না। জনগণের সঙ্গে থাকুন।

তিস্তা নদীর পানির কথা উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভারত গিয়ে পানি আনতে পারে নাই। নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণেই তিস্তার পানি চুক্তি সম্ভব হয়নি। আজ অভিন্ন ৫৪টি নদীতে পানি নেই।

লালমনিরহাট জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম চত্বরে লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলুর সভাপতিতে অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম।

অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, হেলেন জেরিন খান, ওলামাদলের সভাপতি হাফেজ মাওলানা আব্দুল মালেক, সা. সম্পাদক নেছারুল হক, জিয়া পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. মওদুদ হোসেন, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সদস্য ব্যারিস্টার হাসান রাজিব প্রধান, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা।

উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রদলে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এম শাহিন আকন্দ ও কেন্দ্রীয় ছাত্রদলে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা ছাত্রদলে সভাপতি মহিউদ্দিন আহম্মেদ লিমন প্রমুখ।

এদিকে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম। এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে জেলা বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এরপর তিনি উপস্থিত কাউন্সিলরদের কাছে আগামী দিনের সভাপতি ও সম্পাদক হিসেবে দুই জনের নাম প্রস্তাব করতে বলেন। এতে কাউন্সিলরদের পক্ষ থেকে লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সভাপতি হিসেবে অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু ও সা. সম্পাদক হিসেবে হাফিজুর রহমান বাবলার নাম প্রস্তাব করেন।

পরে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে কারও নাম না আসায় দুইজনকেই আগামী দিনের সভাপতি ও সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

Share This: