বাড়ি ফেরার পথে গাড়িতে গণধর্ষণের শিকার গার্মেন্টস কর্মী, হাসপাতালে ভর্তি | Live Press24

বাড়ি ফেরার পথে গাড়িতে গণধর্ষণের শিকার গার্মেন্টস কর্মী, হাসপাতালে ভর্তি

Published on: 11:23 amJanuary 27, 2020

লাইভ প্রেস২৪,জামালপুর: ঢাকা থেকে নিজবাড়ি জামালপুরে ফেরার পথে রাতে পিকআপ গাড়িতে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক পোশাক শ্রমিক। সকালে টাঙ্গাইলের ঘাটাইলের সাগরদিঘি এলাকার রাস্তার পাশ থেকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে পরিবারকে খবর দিলে পরিবারের লোকজন ওই পোশাক শ্রমিককে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। পোশাক শ্রমিকের পুরোপুরি সংজ্ঞা ফেরেনি এখনো। চলছে প্রাথমিক চিকিৎসা। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই পোশাক শ্রমিকের ভ্যাজাইনাল সোয়াপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পোশাক শ্রমিকের মায়ের অভিযোগ, বাড়ি ফেরার পথে ড্রাইভার ও দুই হেল্পারের গণধর্ষণের শিকার হয়েছে তার মেয়েটি।

পোশাক শ্রমিকের বাড়ি জামালপুরের সদর উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামে। ৩ বছর ধরে তিনি ঢাকার আশুলিয়ার ন্যাচারাল ডেনিমসে অপারেটরের কাজ করেন। স্বামী পরিত্যক্তা ওই পোশাক শ্রমিকের একটি সন্তান রয়েছে। শনিবার দুপুর দেড় টায় জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ওই পোশাক শ্রমিককে। আজ রোববার বিকেলে ওই রোগীকে পর্যবেক্ষণ করেছেন হাসপাতালের উপ-পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান ফকির। এর আগে ‘গণধর্ষণের’ অভিযোগে ভর্তি হওয়া ওই পোশাক শ্রমিকের ব্যাপারে কিছুই জানেন না বলে স্বীকার করেন তিনি।

পোশাক শ্রমিকের মা শিউলি বেগম (৬০) লাইভ প্রেস২৪’কে জানান, গার্মেন্টেসের ডিউটি শেষে বৃহস্পতিবার রাতে জামালপুর আসার জন্য আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকায় ওই পোশাক শ্রমিক বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে একটি পিকআপ জামালপুর যাবে বলে গাড়িতে তুলে নেয় তাকে। গাড়িতে ড্রাইভার ছাড়াও দুজন হেল্পার ছিল। তারা তাকে ফলের জুস খেতে দেয়। জুস খাবার পরেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন ওই পোশাক শ্রমিক। শুক্রবার সকালে টাঙ্গাইলের ঘাটাইলের সাগরদিঘি এলাকার রাস্তার পাশ থেকে তাকে প্রায় বিবস্ত্র অবস্থায় উদ্ধার করেন স্থানীয়রা। পোশাক শ্রমিকের কাছে থাকা আইডি কার্ডে বাড়ির ফোন নম্বরে ফোন দেন উদ্ধারকারীরা। পরিবারের লোকজন সেখান থেকে শুক্রবার রাতে বাড়ি নিয়ে আসেন। পোশাক শ্রমিকের অবস্থার অবনতি হলে শনিবার দুপুর দেড় টায় তাকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মা শিউলি বেগম আরও জানান, আমার মেয়ের গয়না-গাটি, মোবাইল ফোন, সবই ছিনতাই হয়েছে। সারারাত হয়তো ওখানেই পড়ে আছিল মাইয়াডা। সকালে, যারা উদ্ধার করে, তারা মেয়েটিকে শীতবস্ত্র দিয়েছে। এখন পর্যন্ত কিছুই খাই নাই আমার মাইয়া ডা গো, বলেই কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। রাতে বাড়ি নেবার পর হালকা চোখ মেলে তাকিয়েছিল সে। তখন বলেছে, জুস খাবার দেবার পর কেমন জানি মাথাটা ঘুরে উঠল। জ্ঞান হারানোর আগে তার মুখের উপর ড্রাইভার ও হেল্পারদের মুখ সে দেখেছিল। তারপর আর তার কিছু মনে নেই। রাস্তার পাশ থেকে যখন তাকে উদ্ধার করা হয় তখন তার কিছুটা জ্ঞান ফেরে। তখন ‘আমি এখানে কেন, কী হয়েছে আমার?’ বলেই সে জ্ঞান হারায় আবার। রাতে সে ঘটনার কিছুটা মনে করতে পারে।

তিনি বলেন, আমগরে ওইরহম কেউ নাইখে। লোকলজ্জায় কাউরে কিছুই কবের পাইনে। হাসপাতালে ভর্তি করছি। স্যালাইন দিছে। পরীক্ষের জন্য কিছু নিছে। থানায় অভিযোগ করি নাই। আমার মাইয়াডা সাইরে উঠুক। তারপর সব অবো।২৪ ঘন্টা পর ওই পোশাক শ্রমিককে পর্যবেক্ষণের পর হাসপাতালের উপ-পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান ফকির লাইভ প্রেস২৪’কে বলেছেন, পোশাক শ্রমিককে দেখলাম। তার চিকিৎসা চলছে। গতকালের চেয়ে আজ তার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তার ভ্যাজাইনাল সোয়াপ নেওয়া হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হবার পর বলা যাবে যে, সেটি গণধর্ষণ কিনা। গাইনি বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. ফাখরিয়া ইসলাম ছুটিতে রয়েছেন। তিনি এলে দ্রুত মেডিকেল বোর্ডের মাধ্যমে ডাক্তারি পরীক্ষার প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

জামালপুর সদর থানার ওসি মো. সালেমুজ্জামান লাইভ প্রেস২৪’কে বলেছেন, ঘটনাটি শুনেছি। ভিকটিমের পরিবারকে বলেছি, ঘটনাটি টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইলের সাগরদিঘি এলাকায়। সেখানে অভিযোগ করেন, সেখানকার থানা-পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।

লাইভ প্রেস২৪/রাজন্য রুহানি/বিএইচ

আরও পড়ুন

চাঁদাবাজির অভিযোগে আনন্দ টিভি থেকে তিনজন বহিষ্কার
পদ নেই তবুও পদোন্নতি দিচ্ছে সরকার : রিজভী
জীবন-জীবিকায় বাজেটে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার চায় বিএনপি
অশুভ উদ্দেশে অন্ধকারে ঢিল ছুড়বেন না, বিএনপিকে কাদের
করোনায় প্রাণ গেল মহানগর বিএনপি নেতা আহসান উল্লাহর
`ক্ষমতাসীনরা স্বাস্থ্য খাতকে লুটপাটের আঁখড়ায় পরিণত করেছে’
বিএনপি ছায়া বাজেট উত্থাপন করবে মঙ্গলবার
বিভেদের ভাইরাসে জাতিকে বিভ্রান্ত না করার আহ্বান কাদেরের
সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন ইউনাইটেডে ভর্তি
সিলেটের সাবেক মেয়র কামরান করোনায় আক্রান্ত