পর্যবেক্ষকরা সন্ধ্যার সময় বলবেন নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে : খসরু | Live Press24

পর্যবেক্ষকরা সন্ধ্যার সময় বলবেন নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে : খসরু

Published on: 9:03 pmJanuary 27, 2020

পর্যবেক্ষকরা সন্ধ্যার সময় বলবেন নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে : খসরু

লাইভ প্রেস২৪ ঢাকা: ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ‘পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা অধিকাংশ সংস্থাই আওয়ামী লীগের দলীয় লোকজনে ভরা’- এমন অভিযোগ করে নির্বাচন সুষ্ঠু না হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) সংখ্যা দেবে এবং ভোটের দিন সন্ধ্যার সময় পর্যবেক্ষকরা বলবে ভোট সুষ্ঠু হয়েছে।’

সোমবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টায় নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সামনে এ অভিযোগ করেন তিনি। ২২টি নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থার মধ্যে ১৮টির কোনো ওয়েবসাইট নেই বলেও দাবি করেন আমীর খসরু।

তিনি বলেন, ‘তাদের অধিকাংশই খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাদের লোকবলও নাই। পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলোর বেশিরভাগই আওয়ামী লীগের দলীয় লোকজন। তারা সন্ধ্যার সময় বলবে, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে।’

ইভিএমের বিষয়ে আমীর খসরু বলেন, ‘এ ব্যাপারে তো বলার দরকার নাই। ইভিএম সংখ্যা দেবে আর পর্যবেক্ষকরা এটাকে স্বাগত জানাবে।’

রাজধানীর গোপীবাগে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থীদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। মামলাও হয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা মামলায় উল্লেখ করেছেন, বিএনপির সমর্থকরাই আওয়ামী লীগের ওপর হামলা করেছে। এর জবাবে খসরু বলেন, ‘দেশের যে অবস্থা, যে দখলদারিত্ব খবরদারির রাজনীতি চলছে, এ রাজনীতিতে বিএনপি আওয়ামী লীগকে আক্রমণ করেছে, এ কথা বিশ্বাস করার কোনো কারণ আছে? আর মামলা তো উল্টো হয়। আপনাকে মারবে, আবার মামলাও দেবে। এটা বাংলাদেশের নিউ নর্মস, নতুন নিয়ম।’

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের শতাধিক নির্বাচনী অফিস রয়েছে ফুটপাতের ওপর- এমনও অভিযোগ করেন খসরু। বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব হচ্ছে এগুলো সাথে সাথে ভেঙে ফেলা। এরপর যদি আবার করে তাদের শোকজ ও জরিমানা করা। তারপরও যদি করে, তাহলে তাদের প্রার্থিতা বাতিল করা। এটা হচ্ছে আইন। কিন্তু কোনো আইনই মানা হচ্ছে না।’

নির্বাচন কমিশন নির্ধারিত পোস্টারের চেয়ে বড় পোস্টার দিয়ে ঢাকা শহর ছেয়ে ফেলা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তার দাবি, ওভার সাইজ সব পোস্টারই সরকারি দলের।

খসরু বলেন, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডটা কোথায় তাহলে? এ ধারা যদি নির্বাচনের দিন পর্যন্ত চলে তাহলে এটা কি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হতে পারে? একটি দল রাস্তা, ফুটপাত, ল্যাম্পপোস্ট দখল করে মাইকিং করে যাচ্ছে সময় ছাড়াই– কিছুই মানছে না আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। আইনকানুন ভঙ্গ করে নির্বাচন করার যে সংস্কৃতি, এটা কি হঠাৎ করে নির্বাচনের দিন পরিবর্তন হয়ে যাবে? এটা বিশ্বাস করার কোনো কারণ আছে? কোনো কারণ নাই।’

‘মাঠে ম্যাজিস্ট্রেটদের কোনো ভ্রাম্যমাণ দল নেই’ বলেও অভিযোগ করেন খসরু। বলেন, ‘বিএনপির প্রার্থীদের ওপর আক্রমণ হচ্ছে। তাদের কোনো নিরাপত্তা নাই। আমরা প্রথম দিন থেকে বলছি, তাদের নিরাপত্তা দেন। প্রার্থীর গায়ে হাত তুলছে, তাতেও মামলা হচ্ছে না।’

২৪ ঘণ্টার মধ্যে ওভার সাইজ ছবি নামিয়ে এবং নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে চলা মাইকিং বন্ধ করবে ইসি- তাদের এমন আশ্বস্ত করা হয়েছে বলেও জানান বিএনপির এ জ্যেষ্ঠ নেতা।

লাইভ প্রেস২৪/এমআর

আরও পড়ুন

সিরাজগঞ্জে আবারও যমুনার পানি বিপদসীমার উপরে
বন্যার্তদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
কাপাসিয়ায় সাড়ে চব্বিশ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়ক নির্মাণের কাজ উদ্বোধন
ওসির সৃজনশীল কর্মদক্ষতায় পাল্টে গেছে থানার চিত্র
সন্তান বিক্রি করতে হলো না তহমিনাকে
মোংলায় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা
পাথরঘাটায় ভূয়া সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা কর্মকর্তা আটক
মাগুরায় পুলিশ পরিচয়ে ২ যুবককে অপহরণ
কিশোরগঞ্জে হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন
শেরপুরে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদযাপন