“৬০০ মাদ্রাসাকে বন্ধ করার চক্রান্ত চলছে”

লাইভ প্রেস২৪ ডেস্ক: প্রতিবাদ সভায় এনআরসির তীব্র বিরোধিতা করলেন রাজ্যের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। এনআরসি, সিএএ-র বিরোধিতায় এবার সমস্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করার পাশাপাশি হিন্দু, অহিন্দু বাছবিচার না করেই প্রতিবাদে সামিল হবার ডাক দিলেন রাজ্যের জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের রাজ্য সভাপতি তথা রাজ্যের গ্রন্থাগার দফতরের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। এদিন বর্ধমানের নবাবহাটে বর্ধমান জেলা জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের অবস্থান মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী বলেন, অসমে ৬০০ মাদ্রাসাকে বন্ধ করার চক্র্ন্তা করছে সেখানকার বিজেপি পরিচালিত সরকার। ক্রমশই গোটা ভারতবর্ষকে বিপদের মুখে ঠেলে দিতে চাইছে কেন্দ্র সরকার।

তিনি এদিন বলেন, ভারতবর্ষে এখন সব থেকে বড় বিপদ নেমে এসেছে। ১০০ কোটি মানুষের অস্তিত্বই সংকটে। তিনি এদিন বলেন, দিল্লির নির্বাচনে দেশের প্রধানমন্ত্রীর ৫৬ ইঞ্চি ছাতি চুপসে গেছে। ৬টি রাজ্যে হেরে গিয়েও ওদের শিক্ষা হয়নি। পাশাপাশি রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত এই মন্ত্রী আরও বলেন, গোটা ভারতবর্ষের মধ্যে নজির সৃষ্টি হয়েছে। কারণ এনআরসি, সিএএ নিয়ে ইতিমধ্যে ১৪৫টি মামলা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে – যা আগে কখনও হয়নি। তিনি বলেন, অসমে এনআরসি চালু করলেও সেখানকার জনগণ প্রতিবাদ করতে পারেনি। কিন্তু বাংলার মানুষ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে সাফ জানিয়ে দিয়েছে বাংলায় কোনেও ভাবেই এনআরসি চালু করতে দেওয়া হবে না।

এরপরই তিনি বলেন, বাংলার মানুষকে একচোখ দেখালে বাংলার মানুষ কত চোখ দেখাতে হয় তা তারা জানেন। গোটা ভারতবর্ষের মানুষকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে বিজেপি সরকার, চাঞ্চল্যকর দাবি তাঁর। আর এরই প্রতিবাদে প্রত্যেককে সমবেতভাবে এগিয়ে আসতে হবে বলে মনে করেন তিনি। সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী এদিন রীতিমত হুঁশিয়ারী দেন কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম কলকাতা২৪।

তিনি বলেন, বাংলায় এনআরসি তাঁরা চালু করতে দেবেন না। পাশাপাশি উপস্থিত জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের সদস্য ও সমর্থকদের বলেন, আপনারা বাড়িতে না থাকলে বাড়ির মহিলাদের জানিয়ে যান, তাঁরা যেন কোনও প্রলোভনেই পা দিয়ে কোনও কাগজপত্র না দেখান বিজেপি বা আরএসএস সমর্থকদের।

লাইভ প্রেস২৪/এমএসএম

Share This: