যবিপ্রবিতে চৌম্বকীয় শক্তির বৈশিষ্ট্য নির্ণয় বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

লাইভ প্রেস২৪,যবিপ্রবি: চৌম্বকীয় শক্তির বৈশিষ্ট্যের সহজ কৌশল রপ্ত, চৌম্বকীয় শক্তি নির্ণয়সহ পদার্থবিজ্ঞানের নানা দিক শিখলেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের (যবিপবি) শিক্ষার্থীরা। একইসঙ্গে চুম্বকীয় শক্তির বিবর্তিত বিভিন্ন রূপও পর্যবেক্ষণ করেছেন তাঁরা। আজ সোমবার দুপুরে যবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের গ্যালারিতে বিশ^বিদ্যালয়ের রিসার্চ সেল আয়োজিত সেমিনারে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকেনোলজি (আইআইটি), খড়গপুরের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. অমল কুমার দাস চৌম্বকীয় শক্তির বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। ‘ক্যান্টিলিভার বিম চুম্বকীয় যন্ত্র: চৌম্বকীয় বৈশিষ্ট্যের জন্য একটি সাধারণ প্রযুক্তি’ শিরোনামে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

মূল বক্তব্যে ড. অমল কুমার দাস বিশে^ আইআইটির অবস্থান, প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষা ও গবেষণা সুবিধা, বৃত্তিসহ বিদেশি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার সুযোগের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ড. অমল কুমার দাস একটি ক্যান্টিলিভার বিম ম্যাগনিটোমিটার যন্ত্র ডিজাইন পূর্বক চৌম্বকীয় ধর্ম মাপার জন্য এটার ব্যবহার করার কথা জানান। তিনি বলেন, এই যন্ত্রটি সমস্ত সমভাব্য আকারের চৌম্বকীয় পদার্থের বৈশিষ্ট্য মাপতে পারে। সেমিনারে এ যন্ত্র দ্বারা সম্পাদিত বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করেন তিনি। তিনি জানান, চৌম্বকীয় এ যন্ত্রটি সস্তা এবং গবেষণার পাশাপাশি পরীক্ষণ পরীক্ষাগারগুলোর জন্য এটা উপযুক্ত। একইসঙ্গে ড. অমল চৌম্বকীয় শক্তির বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের কথা বর্ণনা করেন। তিনি চুম্বকীয় শক্তি রপ্ত করতে বিভিন্ন সহজ কৌশল তুলে ধরেন এবং চৌম্বকীয় শক্তি নির্ণয় করার পদ্ধতিও উপস্থাপন করেন।

সেমিনারে যবিপ্রবির ডিনস কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো: আনিছুর রহমান বলেন, একটি বিশ^বিদ্যালয় কেবল গবেষণার মাধ্যমেই দেশ-বিদেশে পরিচিতি পায়। আগে এ বিশ^বিদ্যালয়ে গবেষণায় বরাদ্দ খুবই কম ছিল। বর্তমান উপাচার্য গবেষণায় বরাদ্দ বাড়িয়েছেন। এখন আমাদের মানসিকভাবে গবেষণা করার জন্য প্রস্তুত হতে হবে। তিনি বলেন, গবেষণা ছাড়া কোনো দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হয় না। বাংলাদেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে গবেষণার মনোযোগী হতে হবে। এ ক্ষেত্রে বিশ^বিদ্যালয়গুলোকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারে।

স্বাগত বক্তব্যে যবিপ্রবির ড. এম. এ. ওয়াজেদ মিয়া ইনস্টিটিউট অব অ্যাডভান্স স্টাডিজের পরিচালক অধ্যাপক ড. সাইবুর রহমান মোল্যা আইআইটির সাথে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সইয়ের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ও গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছে। দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যৌথ গবেষণা হলে উভয় প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা লাভবান হবে।

রিসার্চ সেলের উপদেষ্টা ড. মঞ্জুরুল হকের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন যবিপ্রবির পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. আলমগীর বাদশা। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সুমন চন্দ্র মোহন্ত, ইন্টারন্যাশনাল সার্ভিস সেন্টারের পরিচালক ড. আসিফ নাসেরীসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ।

লাইভ প্রেস২৪/মোসাব্বির হোসাইন/বিএইচ

Share This: