পীরগঞ্জে ১৮টি সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে দ্রুত

লাইভ প্রেস২৪,পীরগঞ্জ: রংপুরের পীরগঞ্জে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আওতায় উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের বিভিন্ন নদী ও খালের উপরে ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৮টি সেতু ও কালভার্ট নির্মাণের কাজ চলছে দ্রুত। পীরগঞ্জ উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান-মানুষের চলাচলে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ করতে পল্লী এলাকায় বেশিরভাগ সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ করা হচ্ছে।

সর্বনিম্ন ৮মিটার সর্বোচ্চ ১৮মিটার দৈর্ঘ্যে ও ৪.৫ মিটার প্রস্থে সেতু ও কালভার্টগুলোর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হবে। নির্মাণাধীন ব্রীজগুলো এ বছরের জুনে শেষ করতে দ্রুতগতিতে কাজ চলছে। চলমান নির্মাণাধীন সেতু ও কালভাট গুলো হচ্ছে- চতরা ইউনিয়নের কুমারপুরের ডাংগাপাড়া, সন্দলপুরের সুরানন্দপুর, মাটিয়ালপাড়ায় ও যাদবপুরের শমসের পাড়ার সড়কে। কাবিলপুর ইউনিয়নের আঁখিরা খালের উপর শ্রীরামপুরের জামদানি, আজমপুর বেড়িবাঁধ ও শ্রীরামপুরের জামদানি সড়কে। রায়পুর ইউনিয়নের বড় নিজামপুরের বড় ঘাটা ও আঁখিরা খালের উপর ধুলগাড়ি কুমারগাড়ী সড়কে, টুকুরিয়া ইউনিয়নের বিছনা ভিটাপাড়ার ও ভগবানপুরের সুজারকুটির নামাপাড়া সড়কে।

শানেরহাট ইউনিয়নের পাহাড়পুরের দামোদরপুর ও দুবরাজপুর মন্ডলপাড়া শানেরহাটগামী সড়কে। চৈত্রকোল ইউনিয়নের অনন্তরামপুরের বাসুদেবপুরে ও শাল্টি পশ্চিমপাড়া সড়কে। বড় আলমপুর ইউনিয়নের ধর্মদাসপুরের সড়ক। পাঁচগাছি ইউনিয়নের পদ্দপুকুরের সড়কে। দুরামিঠিপুর ইউনিয়নের সৈইল ডুবরি বিলের সড়কে। চৈত্রকোল,চতরা, কাবিলপুর ও মিঠিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সবুজ, এনামুল হক শাহিন, রবিউল ইসলাম রবি ও এসএম ফারুক আহম্মেদ জানান-দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আওতায় নির্মিত সেতু- কালভার্টগুলো নির্মাণের ফলে মানুষের দীর্ঘদিনের কষ্ট লাঘব হবে। ইউনিয়ন গুলোর প্রায় দেড় থেকে দুই লাখ মানুষের যাতায়াত সহজ হবে।

পীরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী মুঠোফোনে জানান-সেতু নির্মাণে কাজের গুণগত মান খুবই ভালো, এতে সাধারণ মানুষ উপকৃত হয়েছে। বিগত ২০১০ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত কয়েক অর্থবছরে ৮২টি সেতু ও কালভাটের কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে ১৮টি সেতু ও কালভার্ট নির্মাণাধীন রয়েছে। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নে আরও সেতু ও কালভার্ট নির্মাণের ইচ্ছা পোষণ করেন তিনি।

লাইভ প্রেস২৪/রেজাউল করিম/বিএইচ

Share This: