আইসোলেশন শেষে স্ত্রী-কন্যার কাছে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান

লাইভ প্রেস২৪,ডেস্ক: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থার নির্দেশনা মেনে ১৪ দিন স্ত্রী-কন্যার থেকে দূরে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সেলফ আইসোলেশন শেষ করে অবশেষে পরিবারের কাছে ফিরতে পেরেছেন তিনি।

গত ৮ মার্চ গালফ ওয়েলের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে ওল্ড ট্রাফোর্ড স্টেডিয়ামে বসে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও ম্যানচেস্টার সিটির মধ্যকার জমজমাট ম্যাচ দেখেছিলেন সাকিব। এরপর ফেরেন দেশে, বেশ কিছুদিন কাটান নিজের জন্মস্থান মাগুরায়।

পরে গত ২১ মার্চ তিনি চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে। যেখানে রয়েছে সাকিবের স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির ও কন্যা আলায়না হাসান অব্রি। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র গিয়ে সরাসরি পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি সাকিব, থাকতে হয়েছে আইসোলেশনে।

বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থার নির্দেশনা মোতাবেক শিশির-আলায়নাদের থেকে কাছের দুরত্বেই একটি হোটেলে নিজেকে ১৪ দিনের সেলফ আইসোলেশনে রেখেছিলেন সাকিব। যা শেষ হয়েছে ৩ এপ্রিল। এর মধ্যে তিনি কোন ধরনের অসুস্থতা অনুভব করেননি। ফলে কোন ঝামেলা ছাড়াই ফিরতে পেরেছেন স্ত্রী-সন্তানের কাছে।

তবে আইসোলেশনে থাকলেও ইন্টারনেটের মাধ্যমে বাংলাদেশ তথা সারাবিশ্বের খবরাখবর ঠিকই রেখেছেন সাকিব। সেখানে থেকেই ভিডিওবার্তার মাধ্যমে ঘোষণা দিয়েছেন নিজের দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘দ্য সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন’ গঠনের।

এই ফাউন্ডেশন থেকে এরই মধ্যে ‘মিশন সেভ বাংলাদেশ’ ব্যানারে করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সহায়তার কাজ শুরু হয়ে গেছে। এছাড়া কনফিডেন্স গ্রুপের সঙ্গে এক হয়ে ২০ লাখ টাকার করোনা টেস্টিং কিটও আনছে সাকিবের ফাউন্ডেশন।

লাইভ প্রেস২৪/এসডি