বিদেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনা হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

লাইভ প্রেস২৪,ঢাকা: বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে বিদেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আটকে পড়া প্রবাসীদের ফেরত আনা প্রসঙ্গে জরুরি আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে এ কথা জানান তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস সংকটে বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনব আমরা। তবে ভারতে আটকা পড়া বাংলাদেশিদের এখনই ফেরত আনা যাচ্ছে না বলে জানান ড. মোমেন।

তিনি বলেন, ভারতে আগামী ১৪ এপ্রিল লকডাউন চলবে। তাই সে দেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে সমস্যা হচ্ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রবাসীরা আমাদের দেশের সম্পদ। প্রবাসীদের যে দুর্দশা সৃষ্টি হয়েছে সরকার তা লাঘব করার চেষ্টা করবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার আমাদের প্রবাসীদের সাহায্য করছে, আমাদের মিশনগুলোকে সাহায্য করছে। আমরা তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠি লিখব।

তিনি বলেন, কিছু দেশ আমাদের দেশে মেডিকেল টিম পাঠাতে চায়। সে সম্পর্কে এ বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।

‘এ সংকট মোকাবিলায় আমরা আমাদের মিশনগুলোর সঙ্গে আলাপ করব। আমরা ইতোমধ্যে অনেক কিছু জেনেছি। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মিশনগুলোর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। তাদের যে ধরনের সাহায্য দরকার তা দিতে চেষ্টা করছি। যেখানেই সুযোগ হচ্ছে সেখান থেকে আটকে পড়া প্রবাসীদের ফেরত আনা হচ্ছে’-যোগ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বৈঠকে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমেদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে চার দেশ বাংলাদেশকে চিঠি দিয়েছে।

এ সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি ও প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বিভিন্ন দেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠি লিখতে যাচ্ছি, যারা আমাদের নাগরিকদের এ সংকটে তাদের দেশে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে তাদের।

এর আগে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনা সম্পর্কিত প্রথম বৈঠক গত রোববার (৫ এপ্রিল) প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

লাইভ প্রেস২৪/এমআর