শুধু সিগারেট নয়, ফিল্টারেও যেভাবে বিরাট ক্ষতি | Live Press24

শুধু সিগারেট নয়, ফিল্টারেও যেভাবে বিরাট ক্ষতি

Published on: 3:03 amAugust 2, 2020

লাইভ প্রেস২৪ ডেস্ক : আপনি এই মুহূর্তে কি সিগারেট খাচ্ছেন? এবং তাতে কি ফিল্টার লাগানো? যদি উত্তর হ্যাঁ হয়, তা হলে সিগারেট খাওয়া শেষ হলে সেই ফিল্টারের টুকরোটি যেখানে সেখানে ফেলবেন না। কেন ? তার আগে প্রশ্ন, আপনি কি জানেন সিগারেটের ফিল্টার তৈরি হয় কী দিয়ে? এবং আপনি যখন ওই ফিল্টারটি যেখানে সেখানে ফেলছেন, তখন সেই টুকরোটি ঠিক কী অবস্থায় থাকে?

তার আগে আপনাকে একটা তথ্য দিয়ে রাখা প্রয়োজন। সারা পৃথিবীর ধূমপায়ীরা প্রতি বছর ৬.৫ ট্রিলিয়ন সংখ্যক সিগারেট কেনেন। এর অর্থ প্রতিদিন ১৮ বিলিয়ন। এই এত সংখ্যক সিগারেট যখন রোজ পুড়ছে, তখন গোটা সিগারেটটা পুড়ছে না। ফিল্টার এবং ফিল্টার লাগোয়া খানিকটা সিগারেট পড়ে থাকে। সেই টুকরো আমরা ছুড়ে দিই জানালা দিয়ে বাইরে অথবা ফেলে দিই রাস্তায়।

যে ফিল্টারটি পড়ে রইল সেটা কী দিয়ে বানানো জানেন? ফিল্টার তৈরি হয় এক ধরনের প্লাস্টিক দিয়ে, যার নাম ‘সেলুলোজ অ্যাসিটেট’। এই ফিল্টারটি যখন আমরা রাস্তায় ফেলে দিই, তখন কেবল ওই প্লাস্টিকের টুকরোটাই আমরা ফেলি না, আমাদের পরিবেশে ফেলি অনেকটা নিকোটিন, হেভি মেটাল এবং নানা রাসায়নিক। এইসব কিছু আমাদের পরিবেশে নানা সমস্যা তৈরি করে।

এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, নানারকম রাসায়নিক থাকার জন্য এই সিগারেটের ফিল্টার গাছের বৃদ্ধি রোধ করে। তা ছাড়াও ড্রেন বাহিত হয়ে বিভিন্ন জলাশয়, নদী এবং শেষ পর্যন্ত সমুদ্রে গিয়ে আশ্রয় নেয় এই ফিল্টার। সমীক্ষা বলছে এই বিষাক্ত ফিল্টার সমুদ্রের প্রাণীদের পক্ষে খুবই ক্ষতিকর। তবে শুধু ফিল্টার নয়, দূষণ তৈরিতে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে ই-সিগারেট। গত কয়েক বছরে স্মোকারদের কাছে স্বাস্থ্যের কারণে ই-সিগারেট অনেকটাই জনপ্রিয় হয়েছে। মুশকিল হল এগুলি সম্পূর্ণ প্লাস্টিকের তৈরি। সিগারেট ফিল্টার নিয়ে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য :

১) ফিল্টার ডিজাইন করা হয় তামাকে থাকা টক্সিনকে শুষে নেওয়ার জন্য। পাশাপাশি টার-এর মতো সলিড পার্টিকেল আটকে দেওয়ার জন্য।

২) সিগারেট ফিল্টারে থাকে সেলুলোজ অ্যাসিটেট-এর কোর আর তার উপর থাকে দুটি স্তরে কাগজ অথবা রেয়নের মোড়ক।

৩) ফিল্টারের মূল উপাদান সেলুলোজ অ্যাসিটেট ফাইবার খুব সরু সুতোর চেয়েও সরু। একটি ফিল্টারে থাকে এমন ১২০০০ ফাইবার।

৪) সিগারেটের পুড়তে থাকার হার নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য কাগজের উপর দেওয়া হয় ক্যালসিয়াম কার্বনেট। এটা হোয়াইটনারের কাজ করে। এটা লাগানো হয়, যাতে ছাইয়ের রঙ কিছুটা ‘সুন্দর’ হয়।

দেখা গিয়েছে টক্সিনে ভরপুর একটি সিগারেট ফিল্টার যদি দু’গ্যালন জলে মেশানো যায়, তা হলে সেই জলে থাকা সমস্ত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জলজ প্রাণীর মৃত্যু হয়। অতএব, লক্ষ-লক্ষ এমন সিগারেটের ফিল্টার সমুদ্রের কী অবস্থা করতে পারে তা সহজেই অনুমেয়।

সেলুলোজ অ্যাসিটেট খুবই ধীরে ‘ডিগ্রেড’ করে। হিসেবমতো একটি সিগারেট ফিল্টার সম্পূর্ণ ‘ডিকম্পোজ’ করতে সময় নেয় ১৮ মাস থেকে ১০ বছর। আরও একটি সমীক্ষা জানাচ্ছে সারা পৃথিবীর সমুদ্র সৈকতে সংগৃহীত আবর্জনার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে সিগারেট ফিল্টার। গত ৩২ বছরে সংগৃহীত সিগারেট ফিল্টারের সংখ্যা ৬০ মিলিয়ন। গত ৩২ বছর ধরে এই কাজ করে আসছে ‘ক্লিন ওশন অ্যাকশন’ সংস্থার প্রধান সিনডি জিফ। তাঁর মতে, ‘কেন যে মানুষ এমন বিধ্বংসী কাজ দশকের পর দশক করে গিয়েছে বোঝা মুশকিল।’ এই সংস্থার মতে মানুষের তৈরি সমুদ্র দূষণের অন্যতম কারণ হল সিগারেট ফিল্টার। অনেকেই মনে করেন ফিল্টার ধূমপায়ীদের ফুসফুস ক্ষতির হাত থেকে বাঁচায়।

এটা আসলে বিপণনের কৌশল। সিগারেট খেয়ে অসুস্থ লোকেরা যখন সিগারেট ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবছে, তখন (১৯৫০ সাল নাগাদ) সিগারেট প্রস্তুতকারকেরা সিগারেটের পিছনে ফিল্টার লাগিয়ে বলে দিল এ বার সিগারেট ‘নিরাপদ’। ধূমপায়ীরা ফিরে এল। ব্যবসা ফের মজবুত। নানা পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, সিগারেটের ফিল্টার যে ক্ষতিকর, তাতে কোনও সন্দেহ নেই। আমাদের পরিবেশ দূষিত হচ্ছে, মারা যাচ্ছে সামুদ্রিক প্রাণী।

একটা ফরাসি অ্যামিউজমেন্ট পার্কের কর্তারা বেশ মজাদার পদক্ষেপ করেছে। তাঁরা কয়েকটি কাক-কে প্রশিক্ষণ দিয়ে রেখেছেন। যখনই কেউ পার্কে সিগারেটের টুকরো ফেলে যায়, তখনই সেই কাকেদের কেউ এসে সেটা মুখে করে তুলে নিয়ে লিটারবক্সে ফেলে দেয়। এটা সুখের কথা। তবে, আরও ভালো হয় এর পরের বার সিগারেটের শেষটুকু রাস্তায় যদি না ফেলেন। বা আরও ভালো সিগারেট বাদ দেওয়ার রাস্তাটা যদি বেছে নেওয়া হয়। কেন শুধু শুধু পৃথিবীর মৃত্যু দ্রুত করার অংশীদার হব আমরা! তথ্যসূত্র-নিউজ এজেন্সি।

লাইভ প্রেস২৪/আইজেএস

আরও পড়ুন

করোনা পজিটিভ হলে প্রতিদিন যেসব কাজ করবেন
এবার আত্নহত্যা মোকাবেলায় ‘স্প্রে’
জেনে নিন, ঘর থেকে ‘টিকটিকি’ তাড়ানোর উপায়গুলো
যেভাবে দ্রুত ওজন কমায় ‘সেদ্ধ ডিম’
তুলসী পাতার অনেক উপকারি ১৪টি গুণ
যে প্রস্তুতিতে ভাল ঘুম আসে
কৈশোরে শরীরচর্চা : বাংলাদেশ শীর্ষে
সন্তানের পড়া মনে রাখার সব কৌশল
শুধু সিগারেট নয়, ফিল্টারেও যেভাবে বিরাট ক্ষতি
যে ৫ কাজ খাওয়ার পরে ভুলেও করবেন না