অগাস্ট ১০, ২০২২

নিউজ ডেস্ক: এবার এশিয়া মহাদেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত হতে যাচ্ছে দিনাজপুরে। দিনাজপুর গোড়-এ শহীদ বড় ময়দানে অনুষ্ঠিতব্য ঈদের জামাতে ৬-৭ লাখ মানুষের সমাগম হবে বলে আশা সংশ্লিষ্টদের। যদিও এবারের আয়োজনে ১০ লাখ মুসুল্লির নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন এই ঈদগাহ্ ময়দানের উদ্যোক্তা ও পরিকল্পনাকারী, জাতীয় সংসদের হুইপ (দিনাজপুর-৩) ইকবালুর রহিম।

ইকবালুর রহিম বলেন, এবার এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত দিনাজপুরে অনুষ্ঠিত হবে। দু-একদিনের মধ্যেই আয়োজনের প্রস্তুতিসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে আলোচনা হবে। এরই মধ্যে আধুনিক স্থাপত্যশৈলী সমৃদ্ধ ঈদগাহ মিনারকে নবসজ্জায় সাজানো হয়েছে, লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। শোলাকিয়া একটি ঐতিহ্যবাহী মাঠ, তবে আয়তনের দিক দিয়ে দিনাজপুর ঈদগাহ মাঠ চারগুণ বড়। শোলাকিয়ায় ঐতিহ্যবাহী ঈদের জামাতের পাশাপাশি দিনাজপুরের এ ময়দানে প্রতিবারে ৬-৭ লাখ মানুষের সমাগম হয়। এবার ঈদের জামায়াতে ইমামতি করবেন মাওলানা শামসুল ইসলাম কাসেমী।

২০১৭ সাল থেকেই প্রতিবারে এখানে ঈদের নামাজ আদায় করছেন দিনাজপুর জেলাসহ পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জেলা-উপজেলার ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা। তবে করোনার প্রকোপের ফলে গত দুই বছরে এ মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি। করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় এবার ঈদের জামাতের প্রস্তুতি নিচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। প্রতি বছরের মতো এবারও ঈদগাহ মাঠ জুড়ে নেওয়া হচ্ছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সিসি ক্যামেরা স্থাপনের পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারি রাখারও ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, গোড়-এ শহীদ বড় ময়দানের আয়তন প্রায় ২২ একর। ২০১৭ সালে নির্মিত ৫২ গম্বুজের ঈদগাহ মিনার তৈরিতে খরচ হয়েছে ৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা। গম্বুজগুলোর দুই ধারে ৬০ ফুট করে দুটি মিনার, মাঝের দুটি মিনার ৫০ ফুট করে।