এপ্রিল ১৮, ২০২৪

নিউজ ডেস্ক: চরম অর্থনৈতিক সংকটের মুখে অপসারণের দাবি উপেক্ষা করে নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করেছেন শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে। বিবিসি সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সোমবার নতুন মন্ত্রিসভার ১৭ জন মন্ত্রী শপথ নিয়েছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে। তবে নতুন সরকার গঠনের জন্য গোটাবায়া রাজাপাকসের সহযোগিতার প্রস্তাব বিরোধী দল প্রত্যাখ্যান করায় এই মন্ত্রিসভায় আগের মন্ত্রিসভার বেশ কয়েকজন সদস্য স্থান পাননি।

বিবিসি জানায়, নতুন মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পাননি প্রেসিডেন্টের অনেক আত্মীয়ও। যদিও আগের মন্ত্রিসভায় তারা বেশ গুরুত্বপূর্ণ পদেই ছিলেন।

প্রেসিডেন্টের পরিবারের সবচেয়ে বয়স্ক সদস্য চামাল রাজাপাকসে এবং প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজপাকসের ছেলে নমাল রাজাপাকসেও নতুন মন্ত্রিসভায় ঠাঁই হয়নি। তাদের ভাইয়ের ছেলে শশেন্দ্র রাজাপাকসেও।

চলতি মাসের শুরুতে জরুরি অবস্থা ও কারফিউ অমান্য করে দেশব্যাপী হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় বিক্ষোভ শুরু করার পর সংকটময় পরিস্থিতিতে গোটাবায়া রাজাপাকসে ও তার বড়ভাই প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে ছাড়া মন্ত্রিসভার সদস্যরা পদত্যাগ করেন।

১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর এই প্রথম সবচেয়ে বাজে অর্থনৈতিক সংকটের মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলংকা। আমদানির বিল পরিশোধে প্রয়োজনীয় বিদেশি মুদ্রার তীব্র ঘাটতিই এর প্রধান কারণ বলে জানা গেছে।

গত কয়েক মাস ধরেই টানাটানিতে চলছে শ্রীলংকার সরকার। দেনার বোঝায় মুখ থেঁতলে পড়েছে রাজকোষ। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ তলানিতে। তেল নেই, খাবার নেই। থেমে থেমেই বিদ্যুৎ বিভ্রাট। আধা ঘণ্টা থাকে তো ২ ঘণ্টা উধাও! জ্বালানি চাহিদা পূরণে আমদানি করবে সেই পথও বন্ধ-রিজার্ভ নেই! এমন অবস্থায় একেবারে নিরুপায় হয়েই সত্তর-আশির দশকের হারিকেন, কুপিবাতি আর কাঠ-কয়লার ইস্ত্রির যুগে ফিরে গেছে স্থানীয়রা।

এখানেও ভোগান্তি! অভাবের দেশে সবকিছুই যেন ধরাছোঁয়ার বাইরে! হাল আমলে এসেও চড়া দামে কিনতে হচ্ছে সেকালের পণ্য! নুয়ারা এলিয়া জেলার হ্যাটনের ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, প্রায় ৫০ বছর পর হঠাৎই বেড়ে গেছে কেরোসিনের বাতি ও কাঠ-কয়লার আয়রনের দাম। একটি কাচের চিমনির দামে বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৫০০ শ্রীলংকান রুপি। আর কাঠ-কয়লার আয়রন মেশিন বিক্রি হচ্ছে ৯০০ রুপিতে। হারিকেনের চাহিদাও বেড়েছে। স্থানীয় বাজারে সরবরাহের অভাবে পণ্যটির সংকটও তৈরি হয়েছে।