অগাস্ট ১০, ২০২২

নিউজ ডেস্ক: ইউক্রেনের ভূখণ্ড ব্যবহার করে মস্কোর প্রতি ন্যাটোর হুমকি বন্ধ হলেই সামরিক অভিযানের ইতি টানা হবে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

ইউক্রেনের ভূখণ্ড ব্যবহার করে মস্কোর প্রতি ন্যাটোর হুমকি বন্ধ হলেই সামরিক অভিযানের ইতি টানা হবে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আলেক্সি পোলিশচুক এ কথা বলেছেন। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম ‘তাস’ এর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

তিনি বলেন, ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শেষ হলে রাশিয়ার কাজগুলো সম্পন্ন হবে। এর মধ্যে রয়েছে দোনবাসের জনগণের শান্তিপূর্ণ সুরক্ষা, ইউক্রেনের নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসিবাদ মুক্তকরণ। সেই সঙ্গে ইউক্রেনের ভূখণ্ড থেকে ন্যাটো থেকে রাশিয়ার প্রতি যে হুমকি আসছে তা বন্ধ হওয়া।

তবে ইউক্রেনের ভূখণ্ড থেকে ন্যাটো কীভাবে রাশিয়াকে হুমকি দিচ্ছে সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাননি এ কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় অধ্যুষিত দোনবাস অঞ্চলকে বেসামরিকীকরণের লক্ষ্যে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করেন। এই যুদ্ধে প্রায় ৪৫ লাখ মানুষ ইউক্রেন থেকে পালিয়ে গেছে।
রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আলেক্সি পোলিশচুক এ কথা বলেছেন। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম ‘তাস’ এর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

তিনি বলেন, ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শেষ হলে রাশিয়ার কাজগুলো সম্পন্ন হবে। এর মধ্যে রয়েছে দোনবাসের জনগণের শান্তিপূর্ণ সুরক্ষা, ইউক্রেনের নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসিবাদ মুক্তকরণ। সেই সঙ্গে ইউক্রেনের ভূখণ্ড থেকে ন্যাটো থেকে রাশিয়ার প্রতি যে হুমকি আসছে তা বন্ধ হওয়া।

তবে ইউক্রেনের ভূখণ্ড থেকে ন্যাটো কীভাবে রাশিয়াকে হুমকি দিচ্ছে সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাননি এ কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় অধ্যুষিত দোনবাস অঞ্চলকে বেসামরিকীকরণের লক্ষ্যে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করেন। এই যুদ্ধে প্রায় ৪৫ লাখ মানুষ ইউক্রেন থেকে পালিয়ে গেছে।