এপ্রিল ১৮, ২০২৪

আলিয়া ভাট-রণবীর কাপুরের নিয়ে নিয়ে অনেকদিন ধরেই গুঞ্জন চলছে। প্রতি বছরই একবার করে গুঞ্জন ওঠে এবারই বিয়ে করবেন আলিয়া-রণবীর। কিন্তু প্রতিবারই তা আর হয়ে ওঠে না। তবে অবশেষে সব জল্পনা শেষ হতে যাচ্ছে। এপ্রিলের মাঝামাঝিতে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন রানিলা।

সব ঠিক থাকলে ১৭ এপ্রিলই সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন আলিয়া ভাট-রণবীর কাপুর। তবে এ বিষয়ে দুই পরিবারের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

শোনা যাচ্ছে, আলিয়া ভাটের দাদুর শারীরিক অবস্থা দেখে এম সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া বিয়ে এক-দু’দিন এগিয়েও আনা হতে পারে।

আলিয়া ভাট-রণবীর কাপুরের পরিবারের এক ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাতে ভারতীয় গণমাধ্যম এই সময় বলছে, অভিনেত্রীর দাদু এন রাজদান-এর শারীরিক অবস্থা মোটেই ভালো নেই। তাই তার একান্ত ইচ্ছা নাতনির বিয়ে দেখে যাওয়ার।

জানা গেছে, আলিয়া ভাটের দাদু নাকি রণবীরকে খুবই ভালোবাসেন। তাই চার হাত এক হতে দেখতে চান।

অন্যদিকে, বলিউডভিত্তিক পোর্টাল পিঙ্কভিলা এক বিশেষ প্রতিবেদনে জানিয়ে, রণবীর-আলিয়ার বিয়ের অনুষ্ঠান পাঁচদিন ব্যাপী। বিবাহের উৎসব ১৩ থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। এই সময়ের মধ্যে, সঙ্গীত এবং মেহেন্দি অনুষ্ঠানগুলিও নির্ধারিত রয়েছে।

এর আগে বলিউডভিত্তিক পোর্টাল পিঙ্কভিলা এক বিশেষ প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, কাপুররা এপ্রিলের শেষে বিয়েতে আগ্রহী ছিল, কিন্তু আলিয়া ভাটের দাদা নরেন্দ্র নাথ রাজদানের স্বাস্থ্যসমস্যার কারণে ভাট পরিবার এটি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করতে চায়। বিয়েতে অতিথি-সংখ্যা ৪৫০ জন। ভেন্যু চূড়ান্ত করেছেন রণবীর নিজেই। তার বাবা-মা ঋষি কাপুর ও নীতু কাপুর ১৯৮০ সালে এই আর কে হাউসে বিয়ে করেছিলেন।

তবে কোনো ডেস্টিনেশন ওয়েডিং অথবা বিলাসবহুল হোটেলে বিয়ের আসর বসছে না আলিয়া ভাট ও রণবীর কাপুরের। অতিথিদের তালিকাও থাকবে লিমিটেড। আলিয়া-রণবীরের পরিবার এবং একান্ত ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা ছাড়া আর কেউ আমন্ত্রিত থাকবেন না।

এখন পর্যন্ত যা জানা গেছে রণবীর কাপুরের পৈত্রিক বাড়িতেই বসবে রানিলার বিয়ের আসর। তবে সাত দিনব্যাপী অনুষ্ঠান হবে না। খুব বেশি হলে দু’দিনেই বিয়ের সব আচার অনুষ্ঠান শেষ হবে। সূত্র: এই সময়